Wednesday, April 17, 2024
HomeKolkata২কিমি থেকে সরে এসে শান্তিকুঞ্জের ২০০ মিটার দূরে অভিষেকের সভাস্থল, ৩ ডিসেম্বর...

২কিমি থেকে সরে এসে শান্তিকুঞ্জের ২০০ মিটার দূরে অভিষেকের সভাস্থল, ৩ ডিসেম্বর তৃণমূলের কাঁথি অভিযান ঘিরে ব্যাপক শোরগোল !

spot_imgspot_img
spot_imgspot_img

নিউজবাংলা : আসন্ন পঞ্চায়েত নির্বাচনকে লক্ষ্য রেখে আগামী ৩ ডিসেম্বর কাঁথিতে বিশাল জনসভা করতে চলেছেন তৃণমূল। যার প্রধান বক্তা সর্বভারতীয় তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক তথা সাংসদ অভিষেক ব্যানার্জী।  দিন কয়েক আগেই ঘটা করে অভিষেকের সভার খুঁটিপুজো হয়েছিল কাঁথি’র অরবিন্দ স্টেডিয়ামের মাঠে। মঞ্চ বাঁধার কাজও শুরু হয়েছিল জোর কদমে। এরপর আচমকাই সিদ্ধান্ত বদল। শান্তিকুঞ্জ থেকে প্রায় ২ কিমি দূরের স্টেডিয়াম ছেড়ে অভিষেক ব্যানার্জী’র সভাস্থল সরিয়ে আনা হচ্ছে কলেজ মাঠে। শান্তিকুঞ্জ (অধিকারীদের বাড়ি) থেকে যার দূরত্ব মাত্র কয়েক’শ মিটার।

তবে আচমকা অভিষেকের সভাস্থল বদলে গেল কেন তা নিয়ে শুরু হয়েছে জোরাল জল্পনা। ইতিমধ্যেই খুলে ফেলা হল মঞ্চ। অন্য জায়গায় ফের খুঁটিপুজোর প্রস্তুতিও শুরু হয়েছে। যে মাঠে সভা করার অনুমতি দিয়েছিল প্রশাসন, সেই মাঠ আচমকা কেন বদলে ফেলা হল, তা নিয়ে জল্পনা শুরু হয়েছে তৃণমূলের অন্দরে। সেই সঙ্গে এই ঘটনায় বেজায় ক্ষুব্ধ স্থানীয় বিজেপি নেতৃত্বও।

দিন কয়েক আগে কাঁথি শহরের মধ্যস্থলে অরবিন্দ স্টেডিয়ামে তার মঞ্চ বাঁধার জন্য খুঁটি পুজো হয়। সে সময় কাঁথি সাংগঠনিক জেলা তৃণমূল সভাপতি তরুণ মাইতি, জেলা সভাধিপতি উত্তম বারিক প্রমুখ নেতা উপস্থিত ছিলেন। যদিও সেই অনুষ্ঠানে ছিলেন না জেলার রামনগর বিধানসভা থেকে নির্বাচিত বিধায়ক তথা কারা মন্ত্রী অখিল গিরি এবং তাঁর ছেলে তথা যুব তৃণমূলের কাঁথি সাংগঠনিক জেলা সভাপতি সুপ্রকাশ গিরি।

মঞ্চ তৈরির পাশাপাশি বাঁশ দিয়ে ব্যারিকেড করার কাজও এগিয়ে ছিল বেশ খানিকটা। ইতিপূর্বে সভা সফল করতে কাঁথি এবং তমলুক সাংগঠনিক জেলা জুড়ে প্রস্তুতি বৈঠকও শুরু হয়েছে। এরই মধ্যে সোমবার রাতে আচমকা নিজের ফেসবুকের দেওয়ালে একটি পোস্ট করেন যুব নেতা সুপ্রকাশ গিরি এবং জেলা তৃণমূলের অন্যতম সাধারণ সম্পাদক তরুণ জানা। দুজনেই দাবি করেন, ‘অভিষেকের সভা হবে কাঁথি প্রভাত কুমার কলেজের মাঠে’। তারপরই মঙ্গলবার সকালে স্টেডিয়ামে মঞ্চ খুলে ফেলা হয়।

প্রভাত কুমার কলেজ থেকে ঢিল ছোড়া দূরত্বে বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর বাড়ি ‘শান্তিকুঞ্জ’। কয়েকদিন আগেই হাইকোর্ট নির্দেশ দিয়েছে, বিরোধী দলনেতার বাড়ির সামনে কোনওরকম মিছিল, জমায়েত করা যাবে না। তাছাড়া কাঁথি প্রভাত কুমার কলেজের মাঠে বিপুল সংখ্যায় তৃণমূলের কর্মীরা জড়ো হলে ঢোকা এবং বেরোনোর ক্ষেত্রেও সমস্যা হতে পারে। তারপরেও কেন অরবিন্দ স্টেডিয়াম থেকে সভার স্থল প্রভাত কুমার কলেজের মাঠে সরানো হল তা নিয়ে ধন্দ্ব তৈরি হয়েছে। অরবিন্দ স্টেডিয়ামে অভিষেকের সভা করার দাবিতে অনড় তৃণমূলের একাংশ।

গোটা বিষয়ে শাসক দলকে কটাক্ষ করেছে গেরুয়া শিবির। বিজেপির কাঁথি সংগঠনিক জেলার অন্যতম সহ-সভাপতি অসীম মিশ্র বলেন, “দলের যুবরাজ কোথায় সভা করবেন সেটা ঠিক করতেও হিমশিম তৃণমূল। একপক্ষ স্টেডিয়ামে খুঁটি পুজো করছে, তো আরেক পক্ষ অন্য জায়গায় সভার আয়োজন করছে। কেউই কাউকে বিশ্বাস করতে পারছে না।”

spot_imgspot_img
RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments