Wednesday, April 17, 2024
Homeদক্ষিণবঙ্গপ্রচারই সার, এগরায় পুজোর ক’দিনেই প্রেমিকের হাত ধরে চম্পট ২০ জন নাবালিকার...

প্রচারই সার, এগরায় পুজোর ক’দিনেই প্রেমিকের হাত ধরে চম্পট ২০ জন নাবালিকার !

spot_imgspot_img
spot_imgspot_img

নিউজবাংলা ডেস্ক : মহালয়া থেকে বিজয়া দশমী। দুর্গাপূজোর উৎসবের মাঝেই পূর্ব মেদিনীপুরের এগরা থানা এলাকার প্রায় ২০ জন নাবালিকা চম্পট দিয়েছে প্রেমিকের হাত ধরে। পুজোর মধ্যে ভিড় সামলানোর পাশাপাশি প্রেমিকদের খপ্পড় থেকে নাবালিকা উদ্ধারের জন্য তদন্তে নেমেছে পুলিস।’ পলাতক কিশোরীদের মধ্যে এমন দু’-তিনজন আছে যারা এরআগে প্রেমিকের সঙ্গে পালিয়েছিল। পুলিশ তাদের উদ্ধার করে বাড়ি ফিরিয়ে দিয়েছিল।

পলাতকরা অধিকাংশই পুজো দেখতে যাওয়ার নাম করে বাড়ি থেকে সেজেগুজে বেরিয়েছিল। তারপর আর বাড়ি ফেরেনি। পরিবারের লোকজন কিশোরীদের ফেরানোর জন্য থানার দ্বারস্থ হয়েছেন। শুধু এগরা নয়, পুজোর কয়েকটি দিনে জেলার অন্যান্য থানাতেও নাবালিকা পালানোর ঘটনা ঘটেছে। তমলুক, পাঁশকুড়া থানা এলাকাতেও এনিয়ে অভিযোগ এসেছে।

ভগবানপুর থানার কাজলাগড় গ্রাম পঞ্চায়েতের আবাসবেড়িয়া গ্রামে ১৫ বছরের কিশোর এক নাবালিকাকে ফুসলিয়ে বাড়িতে আনার ঘটনায় বেশ চাঞ্চল্য ছড়ায়। গ্রাম পঞ্চায়েতের পক্ষ থেকে বিষয়টি প্রশাসনের নজরে আনা হয়। পুজোর মধ্যে এনিয়ে হইচই পড়ে যায়। এগরা থানার আইসি মৌসম চক্রবর্তী বলেন, নাবালিকা অপহরণ ও নিখোঁজ নিয়ে কয়েকটি অভিযোগ এসেছে। সেইমতো তদন্ত শুরু হয়েছে।

সূত্রের খবর, গত ২৯ সেপ্টেম্বর এগরা থানার ছোটো রসুলপুর গ্রামের ১৭ বছরের কিশোরী বাথুয়াড়ি হাইস্কুলে যাওয়ার জন্য বের হয়। কিন্তু, ওই ছাত্রী আর বাড়ি আসেনি। তার বাবা এগরা থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। মির্জাপুর গ্রামের এক কিশোরী গত জানুয়ারি ও মার্চ মাসে পরপর দু’বার পটাশপুর থানার পঁচেট গ্রামের এক যুবকের সঙ্গে পালিয়েছিল। ১৫ বছর বয়সি ওই কিশোরীর বাবার অভিযোগ পেয়ে পুলিস তাকে উদ্ধার করে।

ওই নাবালিকা কিছুদিন হোমে ছিল। সেখানে কাউন্সেলিং প্রক্রিয়া শেষে বাড়ি ফিরে আসে। তারপর মহালয়ার দিন ফের ওই নাবালিকা পঁচেট গ্রামের সেই যুবকের সঙ্গে ঘর ছেড়েছে। সম্প্রতি এগরা থানা এলাকায় এক সপ্তাহের মধ্যে তিন নাবালিকা অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার ঘটনায় এগরা-২ বিএমওএইচ থানায় এফআইআর করেন। গঙ্গাধরবাড় ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে টেস্টের পর ওই রিপোর্ট পায় ব্লক স্বাস্থ্য দপ্তর। তারপরই থানায় অভিযোগ জানানো হয়। সেই ঘটনায় তিন যুবককে পুলিস গ্রেপ্তার করেছে।

৩ অক্টোবর মহাষ্টমীর দিন এগরা থানার শুশুনিয়া গ্রামের ১৩ বছরের এক নাবালিকা ঠাকুর দেখতে যাওয়ার নাম করে সকাল ১০টায় বাড়ি থেকে বের হয়। রাত পর্যন্ত বাড়ি ফিরে আসেনি। তাই পরের দিন থানায় এফআইআর করেন নাবালিকার বাবা। ওইদিন সকাল সাড়ে ৯টা নাগাদ এগরার বাথুয়াড়ি বাজারে মণ্ডপ দেখতে বেরিয়েছিল সাহাপুর গ্রামের ১৭ বছরের কিশোরী। তারপর থেকে আর কিশোরীর দেখা নেই। পরের দিন থানায় অপহরণের অভিযোগ করেন কিশোরীর বাবা। তিনি পিরিজখানবাড় গ্রামের এক যুবকের বিরুদ্ধে মেয়েকে অপহরণের অভিযোগ করেছেন।

সংবাদ সূত্র – বর্তমান

spot_imgspot_img
RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments