Wednesday, April 17, 2024
HomeKolkataAbhijit Ganguly : 'চাকরী প্রার্থীদের আন্দোলন ভিত্তিহীন', 'জনতার দরবার'এ অকপট প্রাক্তন বিচারপতি...

Abhijit Ganguly : ‘চাকরী প্রার্থীদের আন্দোলন ভিত্তিহীন’, ‘জনতার দরবার’এ অকপট প্রাক্তন বিচারপতি অভিজিৎ গাঙ্গুলি !

spot_imgspot_img
spot_imgspot_img

নিউজবাংলা ডেস্ক :  এক সময় বঞ্চিত চাকরীপ্রার্থীদের জন্য একের পর এক যুগান্তকারী রায়দান করে রাতারাতি জনপ্রিয়তার শিখরে উঠেছিলেন কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি অভিজিৎ গাঙ্গুলি। এবার বিজেপিতে যোগ দিয়েই একশ আশি ডিগ্রী (Abhijit Ganguly) ঘুরে দাঁড়িয়ে প্রাক্তন বিচারপতির মন্তব্য, “বঞ্চিত চাকরীপ্রার্থীদের আন্দোলন এক্কেবারে ভিত্তিহীন। যারা এভাবে আন্দোলন করছেন তাঁদের কে এসব করাচ্ছে আমার জানা নেই। তবে এই আন্দোলনে কেউ পেছন থেকে মদত দিচ্ছে বলেই আমার মনে হয়”।

শুক্রবার একটি বেসরকারী চ্যানেলে ‘জনতার দরবারে’ এসে অকপটে এমনটাই মন্তব্য করলেন কলকাতা হাইকোর্টের প্রাক্তন বিচারপতি বিজেপি নেতা অভিজিৎ গাঙ্গুলি। তাঁর মতে, “রাস্তায় বসে ২০০ বছর ধরে এমন আন্দোলন করলে কেউ চাকরী পাবেন না। যদি চাকরী পাওয়ার কেউ প্রকৃত দাবীদার থাকেন তাহলে তিনি আদালতে মামলা করুন” বলেই মন্তব্য করেছেন বর্তমানে বিজেপি নেতা অভিজিৎ গাঙ্গুলি।

তাঁর মতে, “যারা আদালতে এসেছেন আমি তাঁদের জন্য রায় দান করেছি। যারা রাস্তায় বসে আন্দোলন করছে, তাঁদের প্রতি আমার কোনও সহানুভুতি নেই। কেউ সত্যিকারের চাকরীর দাবীদার হলে ন্যাহ্য দাবী নিয়ে তিনি আদালতে আসতে পারেন”।  তাঁর মতে, “আমার অর্ডারে অনেকের চাকরী হয়েছে। সত্যিকারের দাবীদারেরা চাকরী পেতেই পারেন। কিন্তু রাস্তায় বসে বছরের পর বছর শুধুমাত্র আন্দোলন করে চাকরী পাওয়া যাবে না। এই ধরণের আন্দোলন ভিত্তিহীন”।

জনতার দরবারে থাকা প্রাক্তন বিচারপতিকে এক আন্দোলনরত চাকরী প্রার্থী প্রশ্ন করেন, “আমরা এখনও রাস্তায় বসে আছি। উনি তো অন্য প্ল্যাটফর্মে চলে গেলেন। আমাদের মতো চাকরীপ্রার্থীরা কি করবে? সেই সময় চ্যানেলের তরফে প্রশ্ন ছুঁড়ে দেওয়া হয়, আপনার রাজনৈতিক বাসনা পূরণ করার জন্যই কি চাকরী প্রার্থীদের জন্য রায় দিয়েছেন। আন্দোলনকারীরা আন্দোলন না করলে জাস্টিস গাঙ্গুলির কোনও অস্তিত্ব ছিল না বলেই তো সবার মত।

এর জবাবে প্রাক্তন বিচারপতির জবাব, “আমি কয়েক মাস আগেই মন্তব্য করেছিলাম, চাকরীর জন্য আন্দোলন ভিত্তিহীন। চাকরী প্রার্থীদের কোনও অজুহাতে চাকরী পাইয়ে দেওয়া ভিত্তিহীন। কারা আন্দোলন করছেন, কেন করছেন তা জানা নেই। এই আন্দোলন সন্দিহান”। আর এক চাকরীপ্রার্থী সুপার নিউমেরারি পদ্ধতিতে নিয়োগের দাবী তুলতেই গাঙ্গুলি জানান, “সুপার নিউমেরারি একটা ভাঁওতা। এই ধরণের পোষ্ট অবৈধ উপায়। এতে টাকা দিয়ে চাকরী পাওয়া ব্যক্তিরাও সুযোগ পেয়ে যেতেন”।

তাঁর পাল্টা দাবী, “যারা আন্দোলন করছেন তাঁরা প্রয়োজনে মামলা করতে পারতেন, যদি তাঁরা সত্যি কারের চাকরীর দাবীদার হতেন”। এই সময় চ্যানেলের প্রশ্ন, আপনি চাকরীজীবিদের জন্য মানবিকতার জন্যই রাজ্যজুড়ে জনপ্রিয়তা পেয়েছেন। প্রাক্তন বিচারপতি গাঙ্গুলির উত্তর, “শুধুমাত্র রাস্তায় বসে আন্দোলন করে চলব এটা ভিত্তিহীন। তিনি জানান, আমি আবেগপ্রবণ ছিলাম ছোটবেলায়। এখন আমি আবেগপ্রবণ নই”।

প্রসঙ্গতঃ রাজ্যের হাজার হাজার বঞ্চিত চাকরীপ্রার্থীরা দীর্ঘদিন ধরেই কলকাতার রাজপথে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন খোলা আকাশের নীচে। সেই আবহেই গত কয়েক বছর ধরে এই চাকরীপ্রার্থীদের মামলায় একাধিক সহানুভুতিপূর্ণ রায় দেওয়ার মাধ্যমেই বিচারপতি অভিজিৎ গাঙ্গুলি হয়ে উঠেছিলেন আন্দোলনকারীদের কাছে ভগবানতুল্য। কিন্তু সেই অভিজিৎ গাঙ্গুলি বিচারপতির চেয়ার ছেড়ে বিজেপি দলে যোগ দিয়েই চাকরীরত আন্দোলনকারীদের যে ভাবে কটাক্ষ করেছেন তাতে আন্দোলনকারীদের মধ্যে রীতিমতো হতাশা প্রকট হচ্ছে।

spot_imgspot_img
RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments