Monday, May 27, 2024
HomeKolkataVisva Bharati : ‘ইগো’ ঝেড়ে ফেলে রবীন্দ্রনাথের নাম ফলকে লিখুন, বিশ্বভারতীর উপাচার্যকে...

Visva Bharati : ‘ইগো’ ঝেড়ে ফেলে রবীন্দ্রনাথের নাম ফলকে লিখুন, বিশ্বভারতীর উপাচার্যকে পরামর্শ বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু’র !

spot_imgspot_img
- Advertisement -

নন্দীগ্রাম, পূর্ব মেদিনীপুর : ইউনেস্কোর ওয়ার্ল্ড হেরিটেজের তকমা পাওয়ার স্বীকৃতি স্বরূপ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের সাধের বিশ্বভারতীতে ফলক লাগিয়েছিলেন উপাচার্য। আর সেই ফলকেই অনুপস্থিত রবী ঠাকুরের নাম, যাকে ঘিরে জোরদার বিতর্ক চলছে রাজ্যজুড়ে। খোদ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশে ঘটনার প্রতিবাদে বিক্ষোভে (Visva Bharati) সামিল হয়েছে তৃনমূল।

তারই মাঝে উপাচার্যকে ফলকে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের নাম উল্লেখ করার বার্তা দিলেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। রবিবার নন্দীগ্রামে এসে শুভেন্দুর মন্তব্য, “এই নিয়ে ভিসি’র ইগোর কি আছে। বিষয়টা হচ্ছে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে একনলেজমেন্ট করা, তাঁকে স্বীকৃতি দেওয়ার। তাই এই ফলক দ্রুত সংশোধন করা হোক”।

শুভেন্দুর উক্তি, “এটা তৃনমূল বলেছে বলে আমি বলব না তা তো হতে পারে না। এই ফলক নিয়ে বিতর্কের কিছু নেই। ভিসি যদি এই ফলকটি করে থাকেন তাহলে কারেকশান করুন”। শুভেন্দুর স্পষ্ট বার্তা, “রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে নিয়ে কোনও কম্প্রোমাইজ নয়। রবি ঠাকুরের সঙ্গে গোটা ভারতবাসীর এবং আমাদের বাঙালিদের একটা সেন্টিমেন্ট আছে।

অতএব রবিন্দ্রনাথ ঠাকুরকে বাদ দিয়ে কিছু হতে পারে না বিশ্বভারতীর”। শুভেন্দুর মতে, “কতগুলি বিষয়ে বাংলা ও বাঙালির ইমোশান আছে, রেসপেক্ট আছে। তা হল নেতাজী সুভাষচন্দ্র বসু, স্বামী বিবেকানন্দ এবং রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর। তাঁদের সম্মান দেওয়ার বিষয়ে কোনও রকম জেদাজেদি থাকতে পারে না”।

শুভেন্দুর মতে, “আমি ফলক দেখছিলাম। কবিগুরুর ইন্সপায়ারেশানে আমরা এই স্বীকৃতি পেলাম, তাঁর সৃষ্টিতেই হেরিটেজের তকমা পেয়েছি একথা উল্লেখ করতে পারেন ভিসি। এটা নিয়ে জেদাজেদির কি আছে। বিষয়টা হচ্ছে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে স্বীকৃতি দিতে হবে। কিন্তু এটা হয়নি। যদি না হয়ে থাকে উনি (পড়ুন ভিসি) কারেকশান করুন। উনার (ভিসি’র) অতো ইগোর কি আছে”। শুভেন্দুর কথায়, “অত জেদ ধরার কারণ নেই। তিনি (ভিসি) কারেকশান করে নিতে পারেন, অসুবিধার কি আছে”।

প্রসঙ্গতঃ বিশ্বভারতীর ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ স্বীকৃতি সংক্রান্ত ফলকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তীর নাম উল্লেখ থাকলেও রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের নামই ফলকে উল্লেখ করা হয়নি। এই নিয়ে রাজ্যজুড়ে তোলপাড় চলছে জোর কদমে। তৃনমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও এই ফলক বিতর্কে সরাসরি উপাচার্যকে বিঁধেছেন। তারপর বিষয়টি নিয়ে শুভেন্দু অধিকারীর বার্তা যথেষ্ট উল্লেখযোগ্য বলেই রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মত।  

- Advertisement -
RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments