Tuesday, May 21, 2024
Homeদক্ষিণবঙ্গCrorepati Dear Lottery : লটারি কেটে আচমকাই কোটিপতি, বিড়ম্বনা হাড়েহাড়ে টের...

Crorepati Dear Lottery : লটারি কেটে আচমকাই কোটিপতি, বিড়ম্বনা হাড়েহাড়ে টের পেল মহিষাদলের বিষ্ণু !

- Advertisement -

মহিষাদল : ঘুমের ঘোরে মাঝে মধ্যেই কোটিপতি হয়ে ওঠার স্বপ্ন দেখত পেশায় শ্রমজীবি যুবক পূর্ব মেদিনীপুরের মহিষাদল থানার কাঞ্চনপুর জালপাই গ্রামের বিষ্ণুপদ ঘোড়াই। কিন্তু কোটিপতি হওয়ার বিড়ম্বনা ঠিক কতটা তা সে হাড়েহাড়ে টের পেল রবিবার। এদিন একটি টিকিট কেটে হঠাৎই কোটিপতি হওয়ার খবর শুনেই চূড়ান্ত আতংকিত হয়ে পড়ে ওই যুবক। টিকিট বেহাত হয়ে যাওয়ার আশংকায় রাতভর থানাতেই কাটাতে বাধ্য হলেন ওই যুবক।

বিষ্ণু জানিয়েছে, রবিবার সকালে কাজে যাওয়ার সময় স্থানীয় গাড়ুঘাটা বাজারে ১৫০টাকা দিয়ে একটি টিকিট কাটে সে। পরে বিকেলের দিকে বাড়ি ফেরার সময় ওই লটারি দোকানে গিয়ে জানতে পারে ওই টিকিটের নম্বরেই সে জিতে নিয়েছে ১ কোটির পুরষ্কার। কিন্তু লটারি দোকানের নিয়ম অনুযায়ী টাকা পেতে হলে দিতে হবে ব্যাঙ্ক, আধার সহ আনুসঙ্গিক কিছু কাগজ।  যা সেই সময় বিষ্ণুর কাছে ছিল না।

অন্যদিকে লটারির দোকানদার জানিয়ে দেয় উপযুক্ত তথ্য সহ এই টিকিট জমা করতে না পারলে বা টিকিট’টি বেহাত হয়ে গেলে তার দায় কেউ নেবে না। এরপরেই প্রমাদ গোনে বিষ্ণু। রাতভর এই টিকিটের পাহারাদারী তার পক্ষে সম্ভব নয় বুঝতে পেরেই টিকিট হাতে সটান মহিষাদল থানায় হাজির হয় সে। পুলিশকে অনুরোধ করে, টিকিট সহ তাঁকে সুরক্ষা দেওয়ার। পুলিশও তাঁর আবেদন মেনে নেয়।

এরই মাঝে লটারি জেতার খবরে এলাকার লোকেরা বিষ্ণুর বাড়িতে ভীড় জমায়। পরিচিত কয়েকজন খবর পেয়ে রাতে থানাতেই চলে আসে। বিষ্ণু জানায়, “টিকিটটি যতক্ষণ না উপযুক্ত কর্তৃপক্ষের কাছে জমা হচ্ছে, ততক্ষণ পর্যন্ত আমি থানাতেই থাকতে চাই। পুলিশও আমাকে সেল্টার দেবে জানিয়েছে। তাই রাতভর থানাতেই রয়েছি। টিকিটের টাকা পাওয়া নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত আমি থানা থেকে কোথাও যাবো না।  

- Advertisement -
RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments